1. admin@ekushdarpon.com : ekushdarpon.com :
মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
মাদারীপুরে এনএসআই’তে চাকুরী দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেয়া চক্রের নারীসহ ৪ সদস্য আটক ইতালীর ভেরনাতে লকডাউন বিহীন স্বাভাবিক জীবনের দাবীতে মানববন্ধন মাদারীপুরে ভুল চিকিৎসার অভিযোগে হাসপাতাল মালিক কারাগারে মাদারীপুরে করোনা ভাইরাসের ২য় ঢেউ মোকাবেলায় জেলা পুলিশের প্রচারনা মাদারীপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে পৌরসভার আয়োজনে সহস্রাধিক কোরআন হাফেজগণের কন্ঠে ১০০ বার কোরআন শরীফ খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত মাদারীপুরে দুই শিশুকে যৌন হয়রানির অভিযোগ মাদারীপুরে মামলার প্রক্সি দিতে এসে আটক মাদারীপুরে বাস চাপায় নিহত ১, বিক্ষুব্ধ জনতার বাসে আগুন কি লাইগা ঘরডা ভাঙ্গল,অহন কই থাহুম মাদারীপুরে ৩৭টি কচ্ছপ ও ৮৭টি কচ্ছপের খোলসা উদ্ধার॥ কচ্ছপ বিক্রেতার ৬ মাসের কারাদন্ড

মাদারীপুরে নতুন ঘড় পেলেন ১শ ৪৬টি গৃহহীন পরিবার: হিরা বেগমদের মুখে খুশির ঝিলিক

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩৪৫ বার পড়া হয়েছে

রাহাত হোসাইন:

হিরা বেগম। স্বামী সোহেল মুন্সী ছিলেন একজন নছিমন চালক। তাদের ছিল ছোট্ট একটি সুখের সংসার। দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে ভাড়া বাসায় চলছিল জীবন। কিন্তু হঠাৎ জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন স্বামী সোহেল মুন্সী।

হিরা বেগমের জীবনে নেমে আসে দুর্দশা। অর্থাভাবে ছাড়তে হয় ভাড়া বাসা। আর দুই সন্তানকে নিয়ে আশ্রয় খুঁজতে ঘুরে বেড়াতে থাকেন পথে-প্রান্তরে। নিরাপত্তাহীনতা আর আশ্রয়হীনভাবে চলছিল জীবন। এভাবেই নিজের দুর্দশা ও দুঃখগাঁথার কথা বলছিলেন হিরা বেগম।

আর সেই জীবনে আলো দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে গৃহহীন হিরা বেগম ঘর পেয়ে আজ আনন্দে আত্মহারা।

হিরা বেগমের মতো মাদারীপুর জেলায় আজ ১শ ৪৬টি পরিবারে বইছে খুশির জোয়ার। আনন্দে আত্মহারা তারা। হিরা বেগমের মতো এ তালিকায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী মফিজ হাওলাদার। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে নিজের নামে জমি ও ঘর পেয়ে আল্লাহর কাছে অফুরন্ত দোয়া কামনা করছেন তিনিও। এভাবে আনন্দ প্রকাশ ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া কামনা করেন ১৪৬টি পরিবার।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে একজন মানুষ গৃহহীন থাকবে না প্রকল্পের মাধ্যমে মাদারীপুর জেলায় বরাদ্দ হয়েছে ৯ শ’ ৮৮টি ঘর বরাদ্দ হয়েছে। এর মধ্যে শনিবার (২৩ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহহীনদের মধ্যে ঘর প্রদান অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর মাদারীপুরের ১৪৬টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়। ২ শতাংশ জমিসহ মাদারীপুর সদর উপজেলায় ২৫টি, শিবচর ৫৮টি, কালকিনি ৩৫টি ও রাজৈরে ২৮টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়।

চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান, মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র মো.খালিদ হোসেন ইয়াদ প্রমূখ। এসময় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, মুজিবর্ষে গৃহহীনদের জন্য মাদারীপুরের ৯৮৮টি ঘর বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আজ ১৪৬টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে হস্তান্তর করা হলো। বাকি ঘরগুলোর কাজ মুজিববর্ষেই মধ্যেই শেষ করে হস্তান্তর করা হবে। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমি ধন্যবাদ জানাই।
হিরা বেগম। স্বামী সোহেল মুন্সী ছিলেন একজন নছিমন চালক। তাদের ছিল ছোট্ট একটি সুখের সংসার। দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে ভাড়া বাসায় চলছিল জীবন। কিন্তু হঠাৎ জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন স্বামী সোহেল মুন্সী।

হিরা বেগমের জীবনে নেমে আসে দুর্দশা। অর্থাভাবে ছাড়তে হয় ভাড়া বাসা। আর দুই সন্তানকে নিয়ে আশ্রয় খুঁজতে ঘুরে বেড়াতে থাকেন পথে-প্রান্তরে। নিরাপত্তাহীনতা আর আশ্রয়হীনভাবে চলছিল জীবন। এভাবেই নিজের দুর্দশা ও দুঃখগাঁথার কথা বলছিলেন হিরা বেগম।

আর সেই জীবনে আলো দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে গৃহহীন হিরা বেগম ঘর পেয়ে আজ আনন্দে আত্মহারা।

হিরা বেগমের মতো মাদারীপুর জেলায় আজ ১শ ৪৬টি পরিবারে বইছে খুশির জোয়ার। আনন্দে আত্মহারা তারা। হিরা বেগমের মতো এ তালিকায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী মফিজ হাওলাদার। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে নিজের নামে জমি ও ঘর পেয়ে আল্লাহর কাছে অফুরন্ত দোয়া কামনা করছেন তিনিও। এভাবে আনন্দ প্রকাশ ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া কামনা করেন ১৪৬টি পরিবার।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে একজন মানুষ গৃহহীন থাকবে না প্রকল্পের মাধ্যমে মাদারীপুর জেলায় বরাদ্দ হয়েছে ৯ শ’ ৮৮টি ঘর বরাদ্দ হয়েছে। এর মধ্যে শনিবার (২৩ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহহীনদের মধ্যে ঘর প্রদান অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর মাদারীপুরের ১৪৬টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়। ২ শতাংশ জমিসহ মাদারীপুর সদর উপজেলায় ২৫টি, শিবচর ৫৮টি, কালকিনি ৩৫টি ও রাজৈরে ২৮টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়।

চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান, মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র মো.খালিদ হোসেন ইয়াদ প্রমূখ। এসময় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, মুজিবর্ষে গৃহহীনদের জন্য মাদারীপুরের ৯৮৮টি ঘর বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আজ ১৪৬টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে হস্তান্তর করা হলো। বাকি ঘরগুলোর কাজ মুজিববর্ষেই মধ্যেই শেষ করে হস্তান্তর করা হবে। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমি ধন্যবাদ জানাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত